হোম খুলনাচুয়াডাঙ্গা কচুয়ায় যুবকের হাতে প্রধান শিক্ষক লাঞ্ছিত

কচুয়ায় যুবকের হাতে প্রধান শিক্ষক লাঞ্ছিত

কর্তৃক Editor
০ মন্তব্য 100 ভিউজ

অনলাইন ডেস্ক:

চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলায় বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন নিয়ে যুবকের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন প্রধান শিক্ষক জহিরুল ইসলাম। বুধবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে কচুয়া উপজেলার তুলপাই দারাশাহী উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রধান শিক্ষক লাঞ্ছিতের খবর বিদ্যালয় ও আশপাশে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত মনির হোসেন নামে ওই যুবকের শাস্তি দাবি করে তারা।

তুলপাই দারাশাহী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহিরুল ইসলাম অভিযোগ করে জানান, বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের জন্য সভা আহ্বান করেন তিনি। এতে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যোৎসাহী সদস্য আব্দুল কাদের। এ সময় ইসমাইল হোসেনসহ বিদ্যালয় সংশ্লিষ্ট আরও কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।

সভা শুরুর একটু পর মনির হোসেন নামে এক যুবক সেখানে ঢুকে পড়েন। এ সময় কোনো কারণ ছাড়াই অশ্রাব্য ভাষায় গালাগালসহ প্রধান শিক্ষককে মারতে তেড়ে যান। একপর্যায়ে প্রধান শিক্ষক তার হাতে লাঞ্ছিত হন। এমন পরিস্থিতিতে উপস্থিত অন্য সদস্যরা বিব্রত হয়ে পড়েন। এরইমধ্যে সভাস্থলের বাইরে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেণি কক্ষে এবং এলাকায় খবরটি ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় বিক্ষুব্ধ হয়ে প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদ জানায় তারা। বিদ্যালয় মাঠে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ মিছিলও করেন তারা।

এমন পরিস্থিতিতে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। দায়ী যুবকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। এ ছাড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আশ্রাফ আলী খান পুরো বিষয় জেনে আইনগত ব্যবস্থা নিতে প্রধান শিক্ষক জহিরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

অভিযুক্ত মনির হোসেন বলেন, আমার ও প্রধান শিক্ষকের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এরইমধ্যে বিষয়টি সমাধান হয়ে গেছে। তবে এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক জহিরুল ইসলাম কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রধান শিক্ষকের ওপর চড়াও হওয়া মনির হোসেন ওই এলাকার মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে। যুবকের এমন কাণ্ডে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন প্রধান শিক্ষক জহিরুল ইসলাম।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন