হোম খুলনাবাগেরহাট সুন্দরবন রক্ষায় বনজিবীদের অর্থবহ অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার দাবী

সুন্দরবন রক্ষায় বনজিবীদের অর্থবহ অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার দাবী

কর্তৃক Editor
০ মন্তব্য 90 ভিউজ

জসিম উদ্দিন, বাগেরহাট:

সুন্দরবন রক্ষায় সরকারের পদক্ষেপসমুহকে ইউনেস্কো প্রশংসা জানিয়েছে। ইউনেস্কো’র এই প্রশংসার স্বচ্ছ বাস্তবায়ন দেখতে চাই। বনজীবি জনগোষ্ঠি চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। বনের উপর যাদের জীবন-জীবিকা বন ব্যবস্থাপনায় তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা প্রয়োজন। বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের আমরা গর্বিত অভিভাক। সুন্দরবন রক্ষায় আমরা ব্যর্থ হলে ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে আমাদের জবাবদিহি করতে হবে। সোমবার(১২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সুন্দরবনের পূর্ব ঢাংমারিতে ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা), সুন্দরবন রক্ষায় আমরা, ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ ও পশুর রিভার ওয়াটারকিপার আয়োজিত সুন্দরবন দিবস- উপলক্ষে বনজীবি সমাবেশে বক্তারা একথা বলেন।

সোমবার বিকেল বনজীবি সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সুন্দরবন রক্ষায় আমরা’র সমন্বয়কারী, পশুর রিভার ওয়াটার পরিবেশকর্মী মোঃ নূর আলম শেখ।

বনজীবি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন যুক্তরাস্ট্রের টেম্পল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা) এর উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. জিয়াউদ্দিন আহমেদ। বনজীবি সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা) এর কেন্দ্রিয় সদস্য সচিব ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশের সমন্বয়কারী শরীফ জামিল। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কর্নেল (অব:) মোহাম্মদ আব্দুস সালাম বীর প্রতীক, উপকূল ও সুন্দরবন রক্ষা আন্দোলনের সমন্বয়কারী সাংবাদিক নেতা নিখিলি ভদ্র, ঢাংমারি ফরেস্ট অফিসের ষ্টেশন কর্মকর্তা মহসিন আলী, ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা) বাগেরহাটের নেতা সৈয়দ মিজানুর রহমান, সাংবাদিক নেত্রী শাকিলা পারভীন রুমা, পরিবেশকর্মী সাংবাদিক নেতা মেজবাহ উদ্দিন মান্নু, শরণখোলা প্রেসক্লাব সভাপতি মোঃ ইসমাইল হোসেন লিটন, সাংবাদিক জসিম উদ্দিন, সাংবাদিক কৌশিক দে বাপী, সাংবাদিক নেতা হেদায়েত হোসেন, বানীশান্তা কৃষিজমি রক্ষা আন্দোলনের নেতা সত্যজিৎ গাইন, কৃষক নেতা হিরন্ময় রায়, পরিবেশকর্মী সাংবাদিক আহসান টিটু, এম এ সবুর রানা, শফিকুল ইসলাম খোকন, আরিফুর রহমান, নদীকর্মী হাছিব সরদার প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. জিয়াউদ্দিন আহমেদ বলেন বাংলাদেশের ফুঁসফুস সুন্দরবন রক্ষায় আমাদের সকলকে সোচ্চার থাকতে হবে। বনজীবিরাই সুন্দরবনের সবথেকে আপনজন। কাজেই সুন্দরবন রক্ষায় বনজীবিদের যেকোন ত্যাগ স্বীকারের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। প্রধান বক্তা শরীফ জামিল বলেন দূষণ এবং দখলের কবল থেকে সুন্দরবনকে রক্ষা করতে হবে। জলবায়ু বিপর্যয়ের অভিঘাতেও সুন্দরবন আজ আক্রান্ত। সুন্দরবন আমাদের মায়ের মতো। মা’কে বাঁচাতে সমন্বিত পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে সুন্দরবন রক্ষায় আমরা’র সমন্বয়কারী পশুর রিভার ওয়াটারকিপার মোঃ নূর আলম শেখ বলেন শিল্পদূষণ, দখল, বিষ প্রয়োগের মাছ নিধন, নির্বিচারে বৃক্ষ নিধন, বন্যপ্রাণী হত্যা বন্ধসহ সুন্দরবন বিনাশী সকল প্রকল্প বাতিল করতে হবে।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন