হোম আন্তর্জাতিক রাখাইনের উত্তর থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে মিয়ানমার, দক্ষিণে হামলা জোরদার

রাখাইনের উত্তর থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে মিয়ানমার, দক্ষিণে হামলা জোরদার

কর্তৃক Editor
০ মন্তব্য 53 ভিউজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের উত্তরাঞ্চল থেকে সেনাসদস্যদের সরিয়ে নিচ্ছে জান্তা সরকার। সেইসঙ্গে রাজ্যের দক্ষিণাঞ্চলে বেসামরিক জনগণের ওপর হামলা আরও বাড়াচ্ছে জান্তা বাহিনী। কারণ তারা জানে যে, এই রাজ্যটিও তাদের হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেছে মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মি। খবর ইরাবতীর।

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাখাইন রাজ্যের মায়বন শহরের দুটি ঘাঁটি থেকে জান্তা সরকার তাদের সেনাদের উড়োজাহাজে করে দক্ষিণে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়ার পর বিবৃতি দেয় এই বিদ্রোহী গোষ্ঠী।

বিবৃতিতে আরাকান আর্মি বলেছে, জান্তা বাহিনী জানে যে,আমাদের সঙ্গে লড়াইয়ে তারা পারবে না। তাই আমরা যেসব শহর দখল করব বলে লক্ষ্যস্থির করছি, সেই সব শহরের ঘাঁটি পুড়িয়ে দিয়ে সেখান থেকে তারা নিজেদের সেনাদের সরিয়ে নিচ্ছে। জান্তা সরকার রাখাইন রাজ্যে তাদের ব্যর্থতা মেনে নিতে পারছে না।

এ সময় বেসামরিক জনগণের ওপর তারা সন্ত্রাসবাদ চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করে আরাকান আর্মি।

রাখাইন রাজ্যের উত্তরাঞ্চলের এই দুই ঘাঁটি থেকে সেনাদের দক্ষিণের অ্যান শহরে জান্তার পশ্চিমাঞ্চলীয় কমান্ডের কাছে সরিয়ে নেয়া হয়। এই দুই ঘাঁটি থেকে চার দফায় সেনাদের সরিয়ে নিয়েছে মিয়ানমার।

এ সময় ঘাঁটিতে মজুত অতিরিক্ত গোলাবারুদ ও অস্ত্র ধ্বংস করে তারা। তাদের সঙ্গে যতটুকু অস্ত্র বহন করা সম্ভব শুধু তাই নেয় সেনাসদস্যরা।

এদিকে, জান্তা সেনারা দক্ষিণ রাখাইনের রামরিতে অনবরত বোমাবর্ষণ করছে বলে জানা গেছে। আকাশ, নৌ ও স্থলপথে শহরটিতে হামলা চালাচ্ছে তারা।

গত শনিবার বিমান হামলা ও গোলার আঘাতে চার নম্বর কিং তাই ওয়ার্ডের অন্তত ১৫০টি ঘর পুড়ে গেছে। থেইম তং প্যাগোডা হিল থেকে সোমবারও রামরি শহরে কামানের গোলা নিক্ষেপ করেছে জান্তা বাহিনী।

এরই জেরে আরাকান আর্মি ঘোষণা দিয়েছে, জান্তা বাহিনী আত্মসমর্পণ না করা পর্যন্ত তাদের সব ঘাঁটিতে হামলা চালাবে তারা।

মিয়ামারের বিদ্রোহী গোষ্ঠীর জোট ‘ব্রাদারহুড এলায়েন্স’ দাবি করেছে জান্তা সরকার তাদের ঘাঁটির চারপাশে ল্যান্ডমাইন পুঁতে রেখেছে। যা বেসামরিক জনগণের জন্য অত্যন্ত উদ্বেগের বিষয় বলে সতর্ক করেছেন তারা।

আরাকান আমি মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত তিনটি ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর জোট ব্রাদারহুড এলায়েন্সের একটি। যারা মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে গত বছরের ২৭ অক্টোবর শান রাজ্যে ‘’অপারেশন ১০২৭’ শুরু করে।

সম্পর্কিত পোস্ট

মতামত দিন